BNP questions police withdrawals after mayor Lokman ‘s killing……..নরসিংদীর পৌর মেয়র হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় তিন পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার ও বদলি কীসের আলামত

বিএনপি নিউজ ২৪ প্রতিবেদকঃ  নরসিংদীর পৌর মেয়র হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জেলার তিন পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার ও বদলির সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিরোধী দলীয় প্রধান হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক। শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে তিনি বলেন, “নরসিংদীর পৌর মেয়র হত্যাকাণ্ড ও পরবর্তী ধ্বংসযজ্ঞের ঘটনার সময়ে জেলার শীর্ষ যে পুলিশ কর্মকর্তারা দায়িত্বে ছিলেন, তাদের প্রত্যাহার করে নিয়েছে সরকার। তারাই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও সাক্ষী। যারা ঘটনা জানতেন, দেখেছেন, তাদের প্রত্যাহার কীসের আলামত?” মঙ্গলবার রাতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে মুখোশধারী ব্যক্তিদের গুলিতে আহত হন নরসিংদী শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমান। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনার পরপরই তার মৃত্যু হয়। ওই রাতেই পুলিশ ঢাকা থেকে গ্রপ্তার করে নরসিংদী জেলা বিএনপি সভাপতি ও কেন্দ্রীয় শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবীর খোকনকে। লোকমান হত্যার পরপরই ছাত্রলীগ নরসিংদী শহরে ব্যাপক বিক্ষোভ ও ভাংচুর করে। তিন দিনের হরতালও ডাকে তারা। বুধবার নরসিংদীতে একটি ট্রেনেও আগুন দেওয়া হয়।
হত্যাকাণ্ডের ৪৮ ঘণ্টা পর বৃহস্পতিবার রাতে লোকমানের ছোট ভাই মো. কামরুজ্জামান একটি মামলা করেন। এতে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজুর ভাই সালাউদ্দিন আহমেদ বাচ্চুসহ ১৪ জনকে আসামি করা হয়েছে, যাদের অধিকাংশই ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মী।

পরদিন শুক্রবার জেলার পুলিশ সুপার আক্কাস উদ্দিন ভূঁইয়াকে প্রত্যাহার এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এসবি) এনামুল কবীর ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিজয় বসাককে বদলির আদেশ দেওয়া হয়।

খায়রুল কবীর খোকনের মুক্তির দাবিতে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে জয়নুল আবদিন ফারুক বলেন, “খোকনকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। লোকমান হত্যার সঙ্গে কারা জড়িত- তা তার পরিবারের সদস্যরা বলে দিয়েছে। এ নিয়ে মামলাও হয়েছে। কিন্তু ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে সরকার খোকনকে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার করেছে।” খোকনকে জামিন দেওয়া হয়নি জানিয়ে ফারুক অভিযোগ করেন, সরকার বিচার বিভাগকে নিয়ন্ত্রণ করছে বলেই জামিন হয়নি।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সেনা মোতায়েন নিয়ে খালেদা জিয়াকে জড়িয়ে বক্তব্য দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনারও সমালোচনা করেন বিরোধী দলীয় প্রধান হুইপ। তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর এরকম বক্তব্য দুঃখজনক। এর মাধ্যমে তিনি দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতীক আমাদের সেনাবাহিনীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছেন।”
অন্যদের মধ্যে বিএনপির সহসভাপতি সেলিমা রহমান, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী, মহিলা দলের সভাপতি নূরে আরা সাফা, সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা, কেন্দ্রীয় নেতা বিলকিস ইসলাম ও মহানগর সভাপতি সুলতানা আহমেদ মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন।

Bnpnews24 Correspondent : BNP senior leader has questioned the government’s motive behind withdrawal and transfer of three police officials following the murder of Narsinghdi municipality mayor. The party’s chief whip Zainul Abdin Farrouque said on Saturday the police officials were at the height of the things involving the murder of Lokman Hossain and subsequent unrest but the government withdrew them.They are the witnesses to the whole thing. What do their withdrawals mean?” the opposition leader asked.
Faroque made the comment at a human chain protests organised by the party’s women’s front, Jatiyatabadi Mohila Dal, in front of the National Press Club in Dhaka demanding release of BNP central leader Khairul Kabir Khokon.Lokman was shot dead in the Narsingdi town by masked miscreants on Tuesday night.

On Friday, the government withdrew the Narsinghdi police superintendent Akkas Uddin, additional police superintendents Bijoy Bashak and Enam Ahmed.

Local leaders of the ruling party’s student front, Bangladesh Chhatra League (BCL), said that Lokman, who was also the town Awami League general secretary, got tangled in a conflict with telecommunication minister and Narsinghdi MP Rajiuddin Ahmed Raju after a BCL factional clash. Several BCL members were jailed in that incident.

They said Raju held Lokman responsible for a protest against him on Oct 22 where district BCL members brandished brooms. On Thursday, Lokman’s brother Kamruzzaman filed a case against Raju’s brother Salahuddin Ahmed Bachchu and 13 others, 48 hours after the killing.
The accused in the case are Bachchu, the minister’s assistant personal secretary Masudur Rahman Murad, district Awami League vice-president Abdul Matin Sarker, town Awami League president Mamtajuddin Bhuiyan, vice-president Miya Mohammad Manjur, Sadar BNP general secretary Nurul Islam, town Juba League general secretary Ashraf Hossain Sarker, Mobarak Hossain, Monwar Hossain, Hiron Miya, Tarek Ahmed, Kabir Sarker, Aziz Miya and ‘Mamun’.

 

Free Web Hosting